গভীর রাতে দোকানের ক্যারামবোর্ড থেকে উদ্ধার হলো নবজাতক

নবজাতক
নবজাতক কন্যাশিশু

অভিভাবকহীন জীবিত বা মৃত নবজাতক পাওয়ার খবর প্রায়ই সংবাদের শিরোনাম হয়। ৭ জুন ২০১০ এমনই ঘটনা ঘটেছে বাগেরহাটের সদর উপজেলায় চিতলী বৈটপুর এলাকায়।

গ্রামে গভীর রাত! নবজাতক শিশুর কান্নার শব্দে ঘুম ভাঙে গৃহবধু জান্নাতুল ফেরদৌস লিজার। ঘুমন্ত স্বামীকে ডাকাডাকি করলেও প্রথমে পাত্তা পাননি।

আবার শব্দ ভেসে এলে স্ত্রীর কান্নামাখা মুখ দেখে মোবাইলের আলোয় দুজনে বের হন শব্দ লক্ষ্যে। কান্নার আওয়াজ স্পষ্ট শুনতে পেয়ে প্রতিবেশিদের সাথে নিয়ে সেখানে যান ওই দম্পতি। গিয়ে দেখেন দোকানের পেছনে ক্যারাম বোর্ডের ওপর রাখা ফুটফুটে এক কন্যা নবজাতক।

জরুরি ফোন দিলে রাত তিনটার সময় শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন শিশুটি আপাতত পুলিশের হেফাযতে আছে। জেলা শিশুকল্যাণ বোর্ডের কাছে এখন পর্যন্ত ২৭ ব্যক্তি শিশুটিকে দত্তক পেতে আবেদন করেছেন।

২ জুন রংপুরের মুন্সিপাড়ায় একটি মসজিদ মাঠের গাছের নিচ থেকে উদ্ধার করা হয় জীবিত কন্যা নবজাতক। এবারের ঘটনাটি দুপুর দেড়টার সময়ের। পুলিশ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। নবজাতক সুস্থ আছে বলে জানা যায়।

২৪ মে ২০২১ লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার ভুট্টাখেত থেকে এক দিন বয়সী রক্তাক্ত এক কন্যা নবজাতক উদ্ধার হয়। পরবর্তীতে রাজশাহীর সরকারি ছোট মনি নিবাস কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। এই শিশুকে দত্তক পেতেও অনেকে আবেদন করেন।

চট্টগ্রাম ওয়াসার মোড় থেকে ২৪ এপ্রিল ২০২১ গভীর রাতে উদ্ধার হয় এক কন্যা নবজাতক। কান্নার আওয়াজ শুনে ও ফুটপাতে নবজাতক পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় এক যুবক ফোন দেয় জরুরি সেবা নম্বর (৯৯৯)তে।

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে ২ মার্চ ২০২১ একটি কালভার্টের ওপর পরিত্যক্ত ব্যাগে পাওয়া যায় একটি কন্যা নবজাতক। ভোরে শ্যামনগর বাস টার্মিনাল মসজিদের মুয়াজ্জিন কান্নার আওয়াজ শুনে নবজাতক উদ্ধার করেন।

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ রাজধানীর বিমানবন্দর থানার বলাকা ভবনের পাশের ঝোপ থেকে মেয়ে নবজাতক উদ্ধার করেন এক পরিচ্ছন্ন কর্মী। পরে নবজাতককে ঢাকা মেডিকেল কলেজে নেয়া হয়।

২০২০ সালের ৩০ অক্টোবর বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার সরালিয়া গ্রামের এক বাগান থেকে একটি ছেলে নবজাতক উদ্ধার হয়েছিল। বাবা মায়ের সন্ধান পাওয়া না যাওয়ায় অবশেষে এক শিক্ষক দম্পতি আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দত্তক নিয়েছেন।

ধর্মীয় মূল্যবোধের অবক্ষয় এমন বহু ঘটনার জন্ম দিচ্ছে। কয়টা ঘটনা আর মিডিয়াতে প্রকাশ পায়? একই সাথে অর্থনৈতিক সামর্থ একটি বড় কারণ হতে পারে। সব মিলিয়ে সমাজ পরিবর্তনের কাজে অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে।

আমাদের ফিচারগুলো পড়তে ক্লিক করুন FeatureBD