প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে জবাব দিল ফেসবুক

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ

করোনা ভাইরাসের ভ্যাক্সিন সম্পর্কে ভুল তথ্য ছড়ানোর জন্য ফেসবুক দায়ী নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। শনিবার এক ব্লগ পোস্টে এই প্রতিক্রিয়া জানায় সোসাল মিডিয়া জায়ান্ট কোম্পানি ফেসবুক।

এর আগে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মন্তব্য করেছিলেন, ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ভাইরাসের ভ্যাক্সিন বিষয়ে ভুল তথ্য ছড়িয়ে বিভ্রান্ত করছে। এভাবে তারা মূলত মানুষ হত্যা করছে।

তবে প্রেসিডেন্ট বাইডেন প্রশাসনের প্রতি ফেসবুক আহ্বান করেছে যেন, ‘আঙ্গুল তোলা না হয়’।

ফেসবুকের হয়ে ব্লগ পোস্টটি লিখেছেন কোম্পানির ভাইস প্রেসিডেন্ট গে রোজেন।

তিনি লিখেছেন, সত্য হচ্ছে আমেরিকার ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মধ্যে করোনার ভ্যাক্সিন গ্রহণের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। শতকরা ৮৫ ভাগ ব্যবহারকারী হয় ভ্যাক্সিন নিয়েছেন অথবা নিতে চান। অন্যদিকে বাইডেন প্রশাসন ৭০ শতাংশ ব্যক্তিকে ভ্যাক্সিন দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছিল যা তারা পূরণ করতে পারেনি। তাই ফেসবুককে দোষারোপ করা উচিত নয়।

সোসাল মিডিয়ার ভূমিকা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে প্রেসিডেন্ট বাইডেন শুক্রবার দাবী করেন, যারা ভ্যাক্সিন নেননি তাদের মধ্যেই শুধু সংক্রামণ দেখা যাচ্ছে। ভ্যাক্সিন বিরোধীতার মাধ্যমে সোসাল মিডিয়াগুলো মানুষ হত্যা করছে।

এছাড়া হোয়াইট হাউজ কর্মকর্তারা বলেই চলেছেন, ভ্যাক্সিন ভুয়া এই প্রচারণার বিস্তার ঘটাচ্ছে সোসাল মিডিয়া।

উল্লেখ্য, ভ্যাক্সিন সম্পর্কে নেটিজেনদের একটা পক্ষ ক্রমাগত দাবি করে চলেছে যে, ভাইরাস রোধে ভ্যাক্সিনের সফলতার হার উল্লেখযোগ্য নয়। বরং এটার সাইড ইফেক্ট বেশি এবং ভাইরাস তার অনুকূল আবহাওয়া পেলে ঠিকই ভ্যাক্সিন গ্রহিতাকে অসুস্থ করে ফেলছে।

করোনা মহামারীতে এখন পর্যন্ত আমেরিকায় মারা গিয়েছেন ৬ লাখ ৮ হাজারেরও বেশি, আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় তিন কোটি ৪০ লাখ মানুষ।